খেলাধুলা

অবশেষে জয়ের দেখা পেল পিএসজি

চলতি ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে টানা দুই ম্যাচ জয়ের দেখা পায়নি প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর পিএসজি। প্রথমে লরিয়েন্ত পরে লিওনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছিল এমবাপ্পেরা। অবশেষে জয়ের দেখা পেল মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। গতকাল শনিবার রাতে নিজেদের ঘরের মাঠে ব্রেস্তকে ২-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।

এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এই ম্যাচে খেলতে পারেননি লিওনেল মেসি। চোটের কারণে ছিটকে গেছেন নেইমারও। মেসি-নেইমারবিহীন ম্যাচে গোল দুটি এসেছে এমবাপ্পে ও থিলো কেহরারের পা থেকে। গোল আরও হবার কথা ছিল। ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য দেখিয়েছে পিএসজি। কিন্তু পিএসজির অনেক আক্রমণই রুখে দিতে পেরেঠে ব্রেস্ত। সারা ম্যাচে অন্তত ৯টি শট তারা করেছিল ব্রেস্তের লক্ষ্য বরাবর।

৭০ শতাংশ সময় বলের নিয়ন্ত্রণে রেখে ২টি গোল দিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে পচেত্তিনোর শিষ্যদের। ম্যাচের ৩২তম মিনিটে জর্জিনিয়ো উইজনাল্ডুমের পাস থেকে বল পেয়ে ডানপায়ের জোরালো শটে জাল কাঁপান এমবাপ্পে। তাকিয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিল না গোলরক্ষকের। ১-০ গোলে বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে দ্বিগুণ হতে পারত ব্যবধান। কিন্তু আনহেল দি মারিয়ার পাসে মার্কো ভেরাত্তির ডান পায়ের শট পোস্টে লাগে। ৫৩ মিনিটের সময় সফল হয় পিএসজি। দ্বিতীয় গোলটি করেন কেহরার। বাঁ দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে নুনো মেন্দেসের কাটব্যাক ছয় গজ বক্সের মুখে পেয়ে প্রথম স্পর্শে ঠিকানা খুঁজে নেন কেরার।

ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে দি মারিয়াকে তুলে নিয়ে সের্হিও রামোসকে নামান পিএসজি কোচ। এ সময় পিএসজির বেধ কয়েকটি আক্রমণ প্রতিহত করে ব্রেস্তের ডিফেন্ডার। মার্কিনিয়োসের হেড গোললাইন থেকে হেডেই ফেরান ব্রেস্তের এক ডিফেন্ডার। ফিরতি বলে মাউরো ইকার্দির প্রচেষ্টা ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন গোলরক্ষক। এই জয়ের ফলে লিগে পঞ্চাশ পয়েন্ট পূরণ হয়েছে পিএসজির। লিগের ২১ ম্যাচ শেষে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে তারা।

Related Articles

Back to top button