বিনোদন

বৌদি, দাদা কেমন আছেন? টুইঙ্কলকে কেন এমন বললেন অক্ষয়?

নয় নয় করে দাম্পত্যের বয়স পেরিয়ে গেল একুশ বছর! শুরুতে রবিনা টন্ডনকে নিয়ে খানিক মন কষাকষি থাকলেও সব ভুলে জমিয়ে সংসার করছেন টুইঙ্কল খন্না ও অক্ষয় কুমার।

সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্নার পাশাপাশি একে-অন্যের সঙ্গে খুনসুটিও করছেন দিব্যি। তারই এক টুকরো উঠে এল ইনস্টাগ্রামে। একুশতম বিবাহবার্ষিকীতে নিজেদের এমন মজাদার ঝগড়ার গল্প অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন অভিনেত্রী-লেখিকা টুইঙ্কল।

রেস্তরাঁয় মুখোমুখি বসে তারকা দম্পতি। ছবির সঙ্গে বিবরণেই টুইঙ্কল লিখেছেন তাঁর আর অক্ষয়ের সেই কথোপকথন। সেই কথোপকথনে টুইঙ্কল বলছেন, ‘জানো, আমরা দু’জন এতটাই আলাদা যে, এখন কোনও পার্টিতে দেখা হলে আমি মনে হয় তোমার সঙ্গে কথাই বলতাম না!’ জবাবে অক্ষয় বলছেন, ‘আমি নিশ্চিত, আমি কথা বলতামই।’ অক্ষয় কি তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চাইতেন কোথাও? স্ত্রীর প্রশ্নে অক্ষয়ের সোজাসাপ্টা উত্তর, ‘না, জিজ্ঞেস করতাম— বৌদি, দাদা কেমন আছেন? বাচ্চারা সব ভাল তো?’

এমন কথোপকথন বাস্তবে সত্যিই ঘটেছে কি না জানা নেই। তবে বলিউডের তারকা দম্পতির মজায় মোড়া খুনসুটির স্বাদ পেয়ে হেসে গড়াগড়ি অনুরাগীরা। ২০০১ সালের জানুয়ারিতে বিয়ে হয় অক্ষয়-টুইঙ্কলের। ছেলে আরব আর মেয়ে নিতারাকে নিয়ে দু’জনের সুখী সংসার।‘বরসাত’ ছবিতে বলিউডে প্রথম পা রাখেন রাজেশ খন্নার মেয়ে টুইঙ্কল। অক্ষয়ের প্রথম ছবি ‘সৌগন্ধ’ তাঁকে পরিচিতি না দিলেও ‘খিলাড়ি’র হাত ধরে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন একদা কারাটেতে ব্ল্যাক বেল্ট পাওয়া অভিনেতা। বিয়ের পর ক্রমে অভিনয় ছেড়ে প্রথমে ব্যবসা শুরু করেছিলেন টুইঙ্কল। ইদানীং লেখিকা হিসেবে তিনি বেশ সফল।

জনপ্রিয়তা ধরে রেখে টানা অভিনয় করে যাচ্ছেন অক্ষয়ও। আপাতত মুক্তির অপেক্ষায় তাঁর সাম্প্রতিকতম ছবি ‘পৃথ্বীরাজ’। আরও ছবি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে।

Related Articles

Back to top button