বিনোদন

বেশি যোগ্যতা নেই কৃতির, অভিনেত্রী জানালেন অতীতের কথা

২০১৪ সালে তেলেগু ছবি ‘নেনোক্কাডিনে’র সুবাদে রুপোলি জগতে পা রাখেন কৃতি। ওই একই বছরে ‘হিরোপান্তি’ ছবির মাধ্যমে বলিউডেও আত্মপ্রকাশ ঘটে তার।

প্রযোজক ছিল বেশ বড়সড়, ছবিও ছিল বেশ বিগ বাজেটের। তবু না বলেছিলেন কৃতি শ্যানন। কারণ? সেই ছবির জন্য প্রস্তাবিত তার চরিত্রটি নাকি মোটেও তেমন গুরুত্বপূর্ণ ছিল না। তা শোনার পর নাকি অভিনেত্রীর ম্যানেজারকে শুনতে হয়েছিল, এর থেকে বেশি ভালো চরিত্রে অভিনয় করার প্রস্তাব পাওয়ার যোগ্যতা নেই কৃতির।

সম্প্রতি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে মুখ খোলার পাশাপাশি কৃতি আরো জানিয়েছেন তিনিও একসময় নেপোটিজম-এর শিকার হয়েছেন। কীভাবে নির্বাচিত হয়েও শেষ পর্যন্ত বাদ পড়েছিলেন সেই ছবি থেকে। তার বদলে এক বড়সড় তারকার মেয়েকে নেওয়া হয়েছিল ওই ছবিতে!

কৃতি অভিনয় করেছেন ‘দিলওয়ালে’, ‘বরেলি কী বরফি’, ‘লুকা ছুপি’, ‘হাউজফুল ৪’, ‘মিমি’র মতো বহু সুপারহিট ছবিতে। ফেরা যাক বলি-সুন্দরীর সেই সাক্ষাৎকার প্রসঙ্গে।

কৃতি নিজেও স্বীকার করেছেন ক্যারিয়ারের শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি তার পক্ষে। তার কথায়, তেমন চূড়ান্ত বাজে ব্যবহারের সম্মুখীন হয়নি কখনো। তবে বহু ছবির জন্য অডিশন দিয়েছি এক সময়। আর সেইসব অডিশন দিয়েছিলাম বলেই আজ আমি অভিনেত্রী হিসেবে হয়ত একটু একটু করে উন্নতি করেছি।

এমনো হয়েছে নতুন মুখ নেবে বলে ছবির জন্য অডিশন নিয়ে শেষমেশ বড় কোনো তারকাকেই নেওয়া হয়েছে। সেসব ব্যাপারে যে তখন বিরক্ত হয়নি সেকথা বললে মিথ্যে বলা হবে।

Related Articles

Back to top button