বিনোদন

সবাই মেয়েদের শরীরের খোঁজ রাখে: মধুমিতা

কলকাতার বাংলা সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার। ছোট পর্দায় এই জুটিকে দর্শক দারুণভাবে গ্রহণ করেছিল। স্টার জলসায় প্রচারিত ‘বোঝে না সে বোঝে না’

সিরিয়ালে মাধ্যমে দর্শকের হৃদয়ে আজও জায়গা দখল করে রয়েছে। এবার মধুমিতা সরকারের প্রথম ওয়েব সিরিজ ‘উত্তরণ’। সুকান্ত গাঙ্গুলির ‘বটতলা’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ওয়েব সিরিজটি। এটি পরিচালনা করেছেন জয়দীপ মুখার্জি। আগামী ২৬ জানুয়ারি হইচইয়ে মুক্তি পাবে এটি।

ওয়েবটিতে দেখা যায়, মধুমিতার নাম পর্ণা। এমএমএস ফাঁস হওয়ার পর পর্ণার সংসার ভেঙে যায়। স্বামী-বাবার পরিবার থেকে বিতাড়িত হয় পর্ণা। তার সঙ্গে ‘নোংরা মেয়েছেলে’-এর তকমা লেগে যায়। এরপর একা লড়াই শুরু হয় পর্ণার। এই পর্ণা চরিত্রে অভিনয় করেছেন মধুমিতা সরকার। পর্ণা চরিত্র রূপায়ন করতে গিয়ে মন ভরেছে মধুমিতার। সেই অভিজ্ঞতা জানিয়ে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে মধুমিতা বলেন—‘‘চরিত্রটি করতে করতে কোথাও যেন আমি আর ‘পর্ণা’ একাকার। আমাকেও তো এখনো খোলামেলা ছবি বা ছোট পোশাকে দেখলে তথাকথিত অনুরাগীরা মন্তব্য লেখেন, ‘পাখি’ কেন এভাবে! আপনাকে সালোয়ার-কামিজেই বেশি ভালো লাগে। সনাতনী সাজে আপনি বেশি সুন্দরী।’’

আক্ষেপ করে মধুমিতা বলেন—‘বিশ্বাস করতে না চাইলেও এটাই সত্যি। বিদেশ বা মুম্বাই তুলনায় বদলেছে। পাশ্চাত্যে নিজের শরীর নিজের দায়িত্ব, এই নীতিবোধে বিশ্বাসী। ফলে, কে কার শরীর দেখল, তাকে প্রকাশ্যে আনল, তা নিয়ে কেউ মাথা ঘামায় না! বলিউডের নায়িকারাও যথেষ্ট সাহসী। তাদের অনেকেরই এমএমএস ফাঁস হয়েছে। তারপরেও তারা স্বাভাবিকভাবেই কাজ করে চলেছেন। ব্যতিক্রম বাংলা, নীতিবাগীশ! শরীর সামান্য বে-আব্রু হলেই গেল গেল রব।

এখনো আমাদের রাজ্যে, শহরে, শহরতলিতে মেয়েদের শরীরের খোঁজই সবাই রাখেন। মনের খোঁজ কেউ নেন না। সেই আশা করাও যেন অন্যায়।’

Related Articles

Back to top button