বিনোদন

বিয়ে করে কোনো অপরাধ করেননি তিনি: আসিফ

৯০ বছর বয়সে বিয়ে করেছেন কুমিল্লার প্রবীণ আইনজীবী মোহাম্মদ ইসমাইল। তিনি কুমিল্লা বার এসোসিয়েশনের পাঁচবারের সাবেক সভাপতি। যদিও তার পাত্রীর বয়স তার বয়সের তুলনায় যথেষ্ট কম।

এই দুজনের বিয়ে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক আলোচনার সুত্রপাত। সেখানে নাম লেখালেন বাংলা গানের জনপ্রিয় গায়ক আসিফ আকবর।

ফেসবুকে ৯০ বছর বয়সে বিয়ে করাকে সাধুবাদ জানিয়ে আসিফ লিখেছেন: ‘কুমিল্লা বার এসোসিয়েশনের পাঁচবারের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ইসমাঈল হোসেন চাচা এখন টক অব দ্যা কান্ট্রি। কোনো অপরাধ করেননি তিনি, নব্বই বছর বয়সে বিয়ে করে দেশব্যাপী আলোচনার জন্ম দিয়েছেন। কুমিল্লায় পাশাপাশি থাকি একই মহল্লায়, আত্মীয়তা না থাকলেও পারিবারিকভাবে আমরা সম্পৃক্ত।

প্রায় ছয় ফুট লম্বা একহারা গড়নের ফর্সা সুন্দর মানুষ তিনি। আইনজীবী হিসেবেও যথেষ্ট প্রথিতযশা। চাচার পাঁচ ছেলে এক মেয়ে এবং নাতি নাতনীরা ঘটকের মাধ্যমে তাকে বিয়ে দিয়েছেন ঘটা করে। চাচী মারা গেছেন আরো বেশ কিছু বছর আগে, দীর্ঘদিন অসুস্থ্যও ছিলেন। চাচার একাকীত্ব দূর করার জন্য সন্তানদের এই পদক্ষেপ আমার কাছে অতুলনীয় মনে হয়েছে। নতুন চাচীও বলেছেন তিনি খেদমত করার মানসিকতা নিয়েই এই বিয়েতে সানন্দে রাজী হয়েছেন।’

আসিফ আরও লিখেছেন, ‘বাংলাদেশে এখন সব বিষয় নিয়ে খুব হাসাহাসি হয়। ফেসবুকে সভ্য আর অসভ্য একাকার হয়ে গিয়েছে। কোনো একটা ঘটনা ঘটলে যাচাই বাছাই ছাড়াই কমেন্ট বক্সে ইয়ার্কী ফাজলামো শুরু হয়ে যায়। …পৃথিবীতে আমরা একটা নির্মম রসিকতাপরায়ণ জাতি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছি। রাষ্ট্র সমাজ মিডিয়া জনগণ সবই যেন ক্লাউনের ভূমিকায় এক কাতারে সামিল।’

‘স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কটা ঐশ্বরিক। স্বামী আগে মৃত্যুবরণ করলে সর্বসংহা নারীজাতি পরিবারের সাথে মিলিয়ে নিতে পারেন সহজে। স্ত্রী আগে মৃত্যুবরণ করলে সেই ভদ্রলোক হয়ে যান দুনিয়ার সবচেয়ে একা মানুষ। একটু চোখ বন্ধ করে ভবিষ্যৎ বাস্তবতা ভাবুন, তারপর চোখ খুলে আশেপাশের উদাহরণে নজর দিন, একবার নিজেকে মিলিয়ে নিন সেই সঙ্গীন পরিস্থিতির সাথে। যদি মানুষ হোন তাহলে হাসি ফাজলামো মশকরার ভাবনা উড়ে যাবে,

অমানুষ হলে আর কোন কথা নেই। … শ্রদ্ধেয় এডভোকেট ইসমাঈল হোসেন চাচা’র সুস্বাস্থ্য দীর্ঘায়ু কামনা করি, চাচীও আনন্দে থাকুন।’

Related Articles

Back to top button