আলোচিত সংবাদ

মায়ের অর্থলোভ, প্রতিদিন সর্বনাশের শিকার হতেন মেয়ে!

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে মায়ের সহযোগিতায় এক শিশুকন্যাকে (১০) দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করেছে এক বখাটে। সর্বশেষ শনিবার গভীর রাতে মেয়েটিকে ধর্ষণের সময় এলাকাবাসী ধর্ষক ও মাকে আটক করে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে সীতাকুণ্ড থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগীর ভাবি। পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের হাসনাবাদ এলাকার আমজাদ আলী সেরাং বাড়ির ফাতেমা বেগম এর ভাড়া বাসার অস্থায়ী বাসিন্দা এক নারীর (৫০) সঙ্গে কিছুদিন পূর্বে পরিচয় হয় বাঁশবাড়িয়া ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নতুন পাড়া গ্রামের মৃত ইলিয়াছের ছেলে ডেকোরেশন কর্মী মো. ইব্রাহিমের (৩২)।

পরিচয়সূত্রে ওই নারীকে খালা ডেকে ইব্রাহিম প্রায়ই তাঁর বাড়িতে রাত্রিযাপন করত এবং মাসুদাকে টাকা পয়সা দিত। এতে ওই নারী যুবকের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়ার সুযোগে সে রাত্রিযাপনকালে তাঁর ১০ বছর বয়সী মেয়েকে বারবার ধর্ষণ করতে থাকে। এতে মেয়েটি প্রচণ্ড ব্যথা ও রক্তক্ষরণে অসুস্থ হয়ে মাকে ধর্ষণের কথা জানালেও মা তাকে চুপ থাকতে ভয়-ভীতি দেখাত।

একপর্যায়ে ব্যথা সহ্য করতে না পেয়ে সম্প্রতি মেয়েটি ইব্রাহিম কর্তৃক নিজ ঘরেই বারবার ধর্ষিত হবার কথা তার ভাবি (২২) সহ প্রতিবেশীদের জানালে তাঁরা ইব্রাহিমকে ধরতে অপেক্ষা করতে থাকে। একপর্যায়ে শনিবার রাতেও ইব্রাহিম ওই বাড়িতে আসলে প্রতিবেশীরা মেয়েটির মা ও ইব্রাহিমকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাঁদের গ্রেপ্তার করে থানায় নেয়। সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,

আপন মায়ের সহযোগিতায় তার শিশুকন্যাকে এক পাষণ্ড নিজ ঘরেই বারবার ধর্ষণ করেছে। মর্মান্তিক এ ঘটনার বর্ণনা দিয়েছে ভুক্তভোগী মেয়েটি নিজে। সে জানিয়েছে, ধর্ষণের কথা বারবার মেয়েটি তার মাকে জানালেও তিনি উল্টো তাকে ভয়-ভীতি দেখিয়েছে কাউকে না বলার জন্য। তাই মেয়েটি অসহায় হয়ে পড়ে। এখন বারংবার ধর্ষণের শিকার হয়ে মেয়েটি খুবই অসুস্থ। এ ঘটনায় মেয়েটির ভাবি বাদী হয়ে তার মা ও ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেণ। আমরা তাদের গ্রেপ্তার করে রবিবার কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছি।

Related Articles

Back to top button