আলোচিত সংবাদ

দেড় ঘণ্টা পর ফেরি ছাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সে নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার মীরগঞ্জ ফেরিঘাটে প্রায় দেড় ঘণ্টা অপেক্ষার পর ফেরি ছাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সে থাকা অবস্থায় এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই নবজাতকের বাবা বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মুলাদী পৌর শহরের বাসিন্দা সাব্বির হোসেন লিমন এ অভিযোগ করেছেন।

রোববার (২১ আগস্ট) সন্ধ্যায় বাবুগঞ্জ উপজেলার মীরগঞ্জ ফেরিঘাটে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পরদিন সোমবার দুপুরে সাব্বির হোসেন লিমন তার ফেসবুক আইডি থেকে আবেগঘন একটি পোস্ট দিলে বিষয়টি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় অনেকেই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মন্তব্য করেছেন। আবার কেউ কেউ এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দাবি করেছেন।

সাব্বির হোসেন লিমন ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘মীরগঞ্জ ফেরি এক ঘণ্টা ৪০ মিনিট বন্ধ রেখে আমার সুস্থ ছেলেটার প্রাণ কেড়ে নিলো। (৬.৪০ মিনিটের ফেরি ছেড়েছে ৮টা ২০ মিনিটে)। মেডিকেল থেকে সুস্থ অবস্থায় রিলিজ দিয়েছে আমার নবজাতক ছেলেটাকে, অ্যাম্বুলেন্সে বাড়ি নিয়ে আসছিলাম। ফেরিতে সাইফুল নামের একজন আছেন ,আমি প্রতিবাদ করায় তিনি আমার ওপর হামলা করার চেষ্টা করেন। একদিকে আমার ছেলের লাশ, অন্যদিকে সন্ত্রাসী সাইফুলের হামলার চেষ্টা … অনেক অসহায় হয়ে পড়েছিলাম আমি।’তিনি আরও লেখেন, ‘পিতার চোখের সামনে সন্তানের মৃত্যু যে কত কষ্টের তা আমি ছাড়া কেউ বুঝবে না। এই ফেরি সিন্ডিকেটের কারণে মরে গেলো আমার নিষ্পাপ ছেলেটা।’

এ বিষয়ে সোমবার রাতে সাব্বির হোসেন লিমন জাগো নিউজকে বলেন, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে গত ১৪ আগস্ট আমার স্ত্রী ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। শনিবার (২০ আগস্ট) আমার স্ত্রী ও নবজাতককে বাড়ি যাওয়ার জন্য ছাডপত্র দেওয়া হয়। ওইদিন নগরীতে এক স্বজনের বাড়িতে আমরা ছিলাম। পরদিন রোববার বিকেলে নবজাতককে নিয়ে নগরী থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে আমরা মুলাদী বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেই। মুলাদী যেতে আড়িয়ালখাঁ নদী পার হতে হয়। যানবাহন ফেরি দিয়ে পার হয়। নগরী থেকে অ্যাম্বুলেন্স রওনা হওয়ার আগেই খবর নিয়ে জানতে পারি বাবুগঞ্জের মীরগঞ্জ ফেরিঘাট থেকে ফেরি ছাড়বে সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে। অ্যাম্বুলেন্স চালক দ্রুত চালিয়ে ৬টা ৩৮ মিনিটে ফেরিঘাটে এসে পৌঁছায়। এর প্রায় ১০ মিনিট পর অপরপ্রান্ত থেকে ফেরি মীরগঞ্জ ফেরি ঘাটে আসে। অন্য যানবাহনের সঙ্গে আমাদের অ্যাম্বুলেন্সটি ফেরিতে ওঠে। কিছুক্ষণের মধ্যে যানবাহনে ফেরি ভর্তি হয়ে যায়। তবে এরপরও ফেরিটি ঘাটে অপেক্ষা করছিল।

তিনি বলেন, এদিকে ফেরিতে অ্যাম্বুলেন্স ঘেঁষে যানবহন ছিল। এক কথায় ফেরিটি গাড়িতে ঠাসা ছিল। অ্যাম্বুলেন্সের এসি খারাপ ছিল। প্রচণ্ড গরম ও বাতাস চলাচল কম থাকায় আমরা হাঁপিয়ে উঠেছিলাম। কিন্তু নবজাতককে নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের বাইরে বের হবো তার উপায় ছিল না। কারণ অ্যাম্বুলেন্সের পাশে আরেকটি গাড়ি ঘেঁষে ফেরিতে রাখা ছিল।লিমন বলেন, এভাবে মিনিট দশেক পেরিয়ে যায়। ফেরি ঘাটেই ছিল। ফেরি না ছাড়ার কারণ জানার চেষ্টা করি এবং স্টাফদের ফেরি ছাড়তে অনুরোধ করি। কিন্তু তারা আমরা কোনো কথাই শুনছিল না। একপর্যায়ে আমার নবজাতকে নিশ্বাস নিতে অসুবিধা হচ্ছিল। এরপর ফের ফেরি ছাড়তে অনুরোধ করি। অবশেষে ফেরি ছাড়ে রাত ৮টা ১৬ মিনিটের দিকে। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। ফেরি যখন মাঝ নদীতে তথন আমার নবজাতক নিস্তেজ হয়ে পড়ে। কিছুক্ষণ পর তার মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, ঘাটে ফেরি বিলম্ব করার কোনো কারণ ছিল না। ফেরিটিতে যান্ত্রিক কোনো ত্রুটিও ছিল না, যে মেরামতের জন্য দেরি করে ছেড়েছে। ফেরিঘাট ইজারা দেওয়া হয়েছিল। ইজারাদারের নিয়োজিত ব্যক্তিরা ঘাট ও ফেরি চলাচলের সময় নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। ইজারাদারের স্টাফ সাইফুল ইসলাম এসব দেখাশোনা করেন। মুলাদী প্রান্তে ফেরী পৌঁছলে তার কাছে ফেরি দেরিতে ছাড়ার কারণ জানতে চেয়েছিলাম। তাকে বলেছিলাম আমার শিশু সন্তানের মুত্যুর জন্য তারাই দায়ী। আমি প্রতিবাদ করি। এসময় সাইফুল তার লোকজনকে নিয়ে আমার ওপর হামলার চেষ্টা করেন।

লিমন আরও বলেন, আমার শিশু সন্তানের মৃত্যু জন্য যারা দায়ী, তাদের কাউকে ছাড়বো না। আমি তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।ফেরি ঘাটের ইজারা নেওয়া বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকনের স্ত্রীর নামে। এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন জানান, ফেরি কেন, কী কারণে দেরিতে ছেড়েছে আমি বলতে পারবো না। হয়তো কোনো সমস্যা হয়ে থাকতে পারে। তিনি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান। অভিযোগ সত্য হলে যা করণীয়, তাই করা হবে বলে জানান তিনি।

বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, মীরগঞ্জ ঘাট থেকে ফেরি দেরিতে ছাড়ার কারণে কারও মৃত্যু হয়েছে, এমন কোনো ঘটনা তার জানা নেই। কেউ তার কাছে মৌখিক বা লিখিতভাবেও বিষয়টি জানাননি। এরপরও তিনি খোঁজ নিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

Related Articles

Back to top button