বিনোদন

মেয়েদের স্বাধীন হওয়া মানেই কি পুরুষের মতো হওয়া, বললেন শুভশ্রী

আর মাত্র কিছুদিনের অপেক্ষা। সামনে দুর্গাপুজো। পুজো অর্থাৎ উৎসব মানেই পেটপুজো ও সিনেমা দেখা। সেই মতো প্রতিবছরই পুজো উপলক্ষে মুক্তি পায় একাধিক ছবি। এ বছরও অন্যথা হচ্ছে না।

মুক্তি পেতে চলেছে একাধিক ছবি। তার মধ্যে অন্যতম পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ছবি ‘বৌদি ক্যান্টিন’। ছবির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় ও সোহম চক্রবর্তী।

আজ শনিবার এলো ছবির টিজার। টিজার পোস্ট করে পরিচালক পরমব্রত লিখলেন, ‘এবার পুজোয় পেটপুজো করতে বৌদি ক্যান্টিনে যাওয়া মাস্ট! ডায়েট ভুলে কবজি ডুবিয়ে ভুরিভোজ করা যাক!’ টিজারেই উঠে এসেছে এক ছাপোষা মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ের স্বপ্নপূরণের গল্প।

ছবির মুখ্য চরিত্র শুভশ্রী, যে পেশায় শিক্ষিকা হলেও রান্না করতে ভালোবাসেন। তার হাতের জাদুতে মজে পরিবার থেকে শুরু করে তার স্বামীর অফিসের সহকর্মীরা। তিনি রান্নাকেই নিজের পেশা করতে চান আর সেই ইচ্ছেকে বাস্তবের রূপ দিতে তৈরি করেন এক ক্যান্টিন। এই গল্পের আড়ালেই রয়েছে স্বামী-স্ত্রীর মান-অভিমানের কাহিনি, রয়েছে পুরুষশাসিত সমাজে এক মেয়ের নিজের পরিচয় তৈরি করার সংগ্রাম। ‘মেয়েদের স্বাধীন হওয়া মানেই কি পুরুষের মতো হওয়া?’ শুভশ্রীর মুখে এই সংলাপ এর মধ্যেই মনে ধরেছে নেটপাড়ার।

বৌদি ক্যান্টিন ছবির অনুপ্রেরণা কলকাতার মেয়ে শেফ আসমা খান। কলকাতা থেকে কয়েকহাজার কিলোমিটার দূরে লন্ডনে সে এখন একাধিক রেস্তোরাঁর মালিক। সেই চরিত্রের অনুপ্রেরণাতেই তৈরি মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। তার স্বামীর চরিত্রে দেখা যাবে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কে, শাশুড়ির চরিত্রে অভিনয় করবেন অনুসূয়া মজুমদার। এ ছাড়াও এ ছবিতে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন সোহম চক্রবর্তী।

বৌদি ক্যান্টিন-এর গল্প সাজিয়েছেন সোমাশ্রী ঘোষ ও অরিত্র সেন। অতিরিক্ত চিত্রনাট্য লিখেছেন পরমব্রত নিজে। পুজোয় মুক্তি পেতে চলেছে ‘বৌদি ক্যান্টিন’। সূত্র: জিনিউজ।

Related Articles

Back to top button