খেলাধুলা

সাড়ে ১৫ কোটির বোলার, ৬ ম্যাচে উইকেট শূণ্য

গত বছর কলকাতায় যখন আইপিএলের নিলামের আসর বসেছিল, তখন কলকাতা নাইট রাইডার্স বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে সবচেয়ে বেশি টাকা খরচ করে প্যাট কামিন্সকে দলে নিয়েছিল। যু’ক্তি ছিল, ইডেনের উইকেট যেহেতু পেস সহায়ক, তাই কামিন্সের গতিই হয়ে উঠবে নাইটদের অ’স্ত্র। কিন্তু করো’না পরিস্থিতির কারণে এবারের আইপিএল হচ্ছে সংযু’ক্ত আরব আমিরাতে। ফলে কামিন্সকে নিয়ে নাইট রাইডার্স ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনা বড় ধাক্কা খেয়েছে।

ম’রুভূমের স্লো লো উইকে’টে ১৫.৫ কোটি রুপিতে কেনা প্যাট কামিন্স এখন নাইট রাইডার্সের কাছে কার্যত ‘বোঝা’ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। শুক্রবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ইয়ন ম’রগ্যানের সঙ্গে দলকে সম্মানজনক স্কোরে নিয়ে গিয়েছিলেন কামিন্স। কিন্তু বল হাতে কোনো সাফল্য পাননি। শুধু উইকে’টের কারণে নয়, কামিন্স তার লাইন-লেংথও ঠিক করতে পারছিলেন না। যখন লাইন ঠিক হচ্ছিল, তখন লেংথে গোলমাল হচ্ছিল। যে কারণে উইকেট আসছে না; বরং বেদম মা’র খাচ্ছেন।

এবারের আইপিএলে মাত্র ২টি উইকেট পেয়েছেন কামিন্স। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে ৪ ওভা’রে ১৯ রান দিয়ে ১ উইকে’টে নিয়েছিলেন। পরের ম্যাচে রাজস্থানের বিপক্ষে নেন ১ উইকেট। ৩ ওভা’রে দিয়েছিলেন ১৩ রান। কিন্তু তারপর থেকে টানা পাঁচ ম্যাচে তার ঝুলিতে কোনো উইকেট আসেনি। সবমিলিয়ে ৮ ম্যাচের ৬টিতেই তিনি উইকেটশূন্য! যে কারণে প্রথম ৬ ওভা’র নাইটরা কোনো সাফল্যও পাচ্ছে না। উল্টো কামিন্সের গতিকে কাজে লাগিয়ে দ্রুত রান তুলছে প্রতিপক্ষ।

একনজরে কামিন্সের শেষ পাঁচ ম্যাচের বোলিং পরিসংখ্যানঃ-

১) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ৩ ওভা’রে বিনা উইকে’টে ২৮ রান।
২) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুঃ ৪ ওভা’রে বিনা উইকে’টে ৩৮ রান।
৩) কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ৪ ওভা’রে বিনা উইকে’টে ২৮ রান।
৪) চেন্নাই সুপার কিংসঃ ৪ ওভা’রে বিনা উইকে’টে ২৫ রান।
৫) দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ৪ ওভা’রে বিনা উইকে’টে ৪৯ রান।

Back to top button