অন্যান্য

কাউকে জো’র করে টিকা দেয়া হবে না

কাউকে জো’র করে করো’নাভাই’রাসের টিকা দেয়া হবে না জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ভ্যাকসিনের (টিকা) বিষয়ে অনেক কথাবার্তা আসে, আম’রা জানি। একটা কথা আম’রা স্পষ্ট বলতে চাচ্ছি, ভ্যাকসিন নেয়াটা মানুষের ব্যক্তিগত স্বাধীনতা। বাংলাদেশে কাউকে ভ্যাকসিন জো’র করে প্রয়োগ করা হবে না। ভ্যাকসিন স্বাধীনভাবে নেবে। বিশ্বের প্রায় সর্বত্রই একই অবস্থা।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে যে ভ্যাকসিন আছে, সেটা অক্সফোর্ড ইউনিভা’র্সিটি আবিষ্কার করেছে। অ্যাস্ট্রাজেনেকা কোম্পানি এই ভ্যাকসিনের মালিক, ভা’রতে শুধু এটার উৎপাদন হচ্ছে। তাদের উৎপাদন করার বড় একটি সুবিধা রয়েছে। বিভিন্ন দেশে এই ভ্যাকসিনটি ওখান (ভা’রত) থেকে পাঠানো হচ্ছে।’

টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়ে জাহিদ মালেক বলেন, ‘অনেকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা বলছেন। প্রত্যেকটি ভ্যাকসিনের কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। ওষুধেরও থাকে। অনেক ওষুধ আছে অনেকের স্যুট করে না, এলার্জি হয়। এই ওষুধের যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবে না এটা আম’রা বলতে পারি না। তবে যতুটুকু শুনেছি, এই ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া খুব সামান্য। একটু মা’থাব্যথা হয় বা জ্বর হয়।’

ভা’রতে ইতোমধ্যে লাখ লাখ মানুষকে এই ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইউকে-তেও (যু’ক্তরাজ্য) অনেক লোককে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে। সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিরাও এই ভ্যাকসিন নিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘ভ্যাকসিনের জন্য আমাদের অর্থের প্রয়োজন হবে। আনন্দের বিষয় হলো বিশ্বব্যাংক, এডিবি, জাইকা প্রত্যেকেই আবার প্রস্তাব দিয়েছে ভ্যাকসিন কেনার জন্য তারা অর্থায়ন করতে চায়। সেটা প্রায় ১.৮ বিলিয়ন ডলার। এই অর্থ তারা আমাদের অফার করেছে। এখন বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত তারা কতটুকু গ্রহণ করবে বা করবে না।’

Back to top button