খেলাধুলা

করো’নায় বাতিল হয়ে গেল রিও ওপেন!!

দক্ষিণ আ’মেরিকার সবচেয় বড় টেনিস টুর্নামেন্ট রিও ওপেন বাতিল করা হয়েছে। ব্রাজিলে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি হঠাত করেই বেশী খা’রাপ হয়ে যাওয়া এ বছর আর এই টুর্নামেন্ট আয়োজিত হচ্ছেনা। এর আগে করো’নার কারণে এটিপি ৫০০ ইভেন্ট অনির্দিষ্ট’কালের জন্য ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে বন্ধ হয়ে যায়।

অন্যদিকে একটু দেরিতে আয়োজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। জানুয়ারিতে বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্ল্যাম আয়োজনের কথা থাকলেও করো’নার কারণে তা তিন সপ্তাহ পিছিয়ে যায়। এক বিবৃতিতে রিও ওপেনের আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘চারদিকে করো’না ভাই’রাসের অনিশ্চিত পরিস্থিতির কারণে ২০২১ সালের রিও ওপেন আয়োজন সম্ভব হচ্ছে না।’

তারা আরো জানিয়েছে রিও ওপেনের পরবর্তী আসর ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ ২০২০ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি রিও ওপেনের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর একদিন পরেই ব্রাজিলে কোভিড-১৯ কেস প্রথমবারের মত ধ’রা পড়েছিল। নতুন ধরনের ভাই’রাস সংক্রমন ঠেকাতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে দক্ষিণ আ’মেরিকান দেশগুলোকে। গত বছর জুলাইয়ে এই অঞ্চলে যে সংখ্যক মানুষের মৃ’ত্যু হয়েছিল এ বছর একইসাথে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দ্বিগুণ।দক্ষিণ আ’মেরিকার সবচেয় বড় টেনিস টুর্নামেন্ট রিও ওপেন বাতিল করা হয়েছে। ব্রাজিলে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি হঠাত করেই বেশী খা’রাপ হয়ে যাওয়া এ বছর আর এই টুর্নামেন্ট আয়োজিত হচ্ছেনা। এর আগে করো’নার কারণে এটিপি ৫০০ ইভেন্ট অনির্দিষ্ট’কালের জন্য ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে বন্ধ হয়ে যায়।

অন্যদিকে একটু দেরিতে আয়োজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। জানুয়ারিতে বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্ল্যাম আয়োজনের কথা থাকলেও করো’নার কারণে তা তিন সপ্তাহ পিছিয়ে যায়। এক বিবৃতিতে রিও ওপেনের আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘চারদিকে করো’না ভাই’রাসের অনিশ্চিত পরিস্থিতির কারণে ২০২১ সালের রিও ওপেন আয়োজন সম্ভব হচ্ছে না।’

তারা আরো জানিয়েছে রিও ওপেনের পরবর্তী আসর ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ ২০২০ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি রিও ওপেনের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর একদিন পরেই ব্রাজিলে কোভিড-১৯ কেস প্রথমবারের মত ধ’রা পড়েছিল। নতুন ধরনের ভাই’রাস সংক্রমন ঠেকাতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে দক্ষিণ আ’মেরিকান দেশগুলোকে। গত বছর জুলাইয়ে এই অঞ্চলে যে সংখ্যক মানুষের মৃ’ত্যু হয়েছিল এ বছর একইসাথে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দ্বিগুণ।

Back to top button