অন্যান্য

দাম বাড়ল সোনার, তেজ দেখাল রূপা-প্লা’টিনামও

বিশ্বজুড়ে করো’নাভাই’রাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দামে ব্যাপক অস্থিরতা দেখা যাচ্ছে। মাঝে কিছুটা দাম কমলেও প্রায় দুই মাস ধরে সোনার দাম ঊর্ধ্বমুখী ধারায় রয়েছে। গত সপ্তাহে এক শতাংশেরও বেশি বেড়ে প্রতি আউন্স সোনার দাম আবারও ১ হাজার ৯০০ ডলার ছাড়িয়েছে। সোনার পাশাপাশি গত এক সপ্তাহে রূপা এবং প্লা’টিনামেরও দাম বেড়েছে।

বিশ্ববাজারে দাম বেড়ে যাওয়ায় চলতি মাসে দেশের বাজারে দু’দফায় ভরিতে সোনার দাম ৪ হাজার ৩৭৪ টাকা বাড়িয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। সবশেষ গত ২৩ মে থেকে সোনার নতুন দাম কার্যকর হয়েছে। নতুন দাম অনুযায়ী, বর্তমানে সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) সোনা ৭৩ হাজার ৪৮৩ টাকা, ২১ ক্যারেটের সোনা ৭০ হাজার ৩৩৩ টাকা, ১৮ ক্যারেটের সোনা ৬১ হাজার ৫৮৪ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি সোনা ৫১ হাজার ৬২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

নতুন করে সোনার দাম বাড়ার কারণ হিসেবে সমিতি জানিয়েছে, করো’নার কারণে বিশ্ববাজারে সোনার দাম বেড়েছে। বন্ধ রয়েছে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। ফলে আম’দানি পর্যায়ে শুল্ক জটিলতার কারণে চাহিদার বিপরীতে সোনা আম’দানি করতে পারছেন না ডিলাররা। সে কারণে দাম বেড়েছে।

বাংলাদেশে যখন সোনার দাম বাড়ানো হয়, তখন বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স সোনার দাম ছিল ১ হাজার ৮৮১ ডলার। গত এক সপ্তাহে তা বেড়ে এখন ১ হাজার ৯০৩ দশমিক ২০ ডলারে উঠেছে। অর্থাৎ বাংলাদেশে সোনার দাম বাড়ানোর পর বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স সোনার দাম বেড়েছে ২২ ডলার।

আগামী সপ্তাহে বিশ্ববাজারে সোনার দাম বাড়ার প্রবণতা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশের বাজারেও সোনার দাম বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন বাজুস এর সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমা’র আগরওয়ালা।

সোনার পাশাপাশি গত সপ্তাহে বেড়েছে রূপার দামও। গত সপ্তাহে বিশ্ববাজারে রূপার দাম বেড়েছে ১ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং মাসের ব্যবধানে বেড়েছে ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। এতে প্রতি আউন্স রূপার দাম দাঁড়িয়েছে ২৭ দশমিক ৯৪ ডলার। আর সবচেয়ে দামি ধাতু প্লা’টিনামের দাম গত সপ্তাহে বেড়েছে ১ দশমিক ১৬ শতাংশ। এতে প্রতি আউন্স প্লা’টিনামের দাম দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৮০ দশমিক শূন্য ৩ ডলারে।

Back to top button