জাতীয়

৯ বছরের শি’শুকন্যাকে অ’পহ’রণ করে প্রায় এক বছর ধরে দেহব্যবসা

সিলেটে ৯ বছরের শি’শুকন্যাকে অ’পহ’রণ করে জো’রপূর্বক দেহব্যবসায় বাধ্য করে অ’পহ’রণকারী চক্র। প্রায় এক বছর ধরে ওই শি’শুকন্যাকে দিয়ে নগরীর উপশহরের ‘গুলবাহার হোটেলে’ দেহব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল চক্রটি।
অবশেষে শি’শুকন্যার বাবার জিডি ও একটি ফোন কলের সূত্র ধরে পু’লিশ এক নারীসহ ওই চক্রের তিনজনকে আ’ট’ক করেছে। উ’দ্ধার করা হয়েছে অ’পহৃত শি’শুকন্যাকে।

বৃহস্পতিবার রাতভর অ’ভিযান চালিয়ে কৌশলে গোয়াইনঘাট থা’নার সালুটিকর পু’লিশ ত’দন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা শি’শুকন্যাকে উ’দ্ধার ও চক্রের তিন সদস্যকে আ’ট’ক করেন।

সালুটিকর পু’লিশ ত’দন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইস’লাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

পু’লিশ জানায়, সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজে’লার নন্দীরগাঁও ইউনিয়নে ৯ বছর বয়সী এক শি’শুকন্যা নি’খোঁজ হয়েছিল গত ঈদুল আজহার ৩ দিন আগে। এ বিষয়ে শি’শুকন্যার পিতা গোয়াইনঘাট থা’নায় প্রথমে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) ও পরে একটি লিখিত অ’ভিযোগ দায়ের করেন। প্রায় এক বছর পর অবশেষে ওই শি’শু কন্যাটিকে উ’দ্ধার করেছে পু’লিশ।

এ ঘটনায় উপজে’লার তোয়াকুল ইউনিয়নের পূর্ব পেকেরখাল গ্রামের বটাই মিয়ার ছে’লে আনোয়ার হোসেনকে অ’ভিযু’ক্ত করে গোয়াইনঘাট থা’নায় লিখিত অ’ভিযোগ দায়ের করেছিলেন নি’খোঁজ শি’শুকন্যার পিতা। অ’ভিযোগ ও জিডির সূত্র ধরে গোয়াইনঘাট থা’নার সালুটিকর পু’লিশ ত’দন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইস’লাম খান শি’শু কন্যাটির সন্ধানে দীর্ঘদিন ধরে নানা কৌশল অবলম্বন করেন।

এক পর্যায়ে পু’লিশ জানতে পারে শি’শুটি কুমিল্লার লাকসাম উপজে’লার লাকসাম গ্রামের হালিমা বেগম নামের এক দেহ ব্যবসায়ীর হাতে রয়েছে। সে বর্তমানে সিলেট আবহাওয়া অফিস সংলগ্ন অনামিকা ৬২ নম্বর বাসায় বসবাসরত। হালিমা অ’পহ’রণকারীর কাছ থেকে শি’শুকন্যাকে নিয়ে নিজের কাছে রেখে দেহব্যবসা করান।

সম্প্রতি তুলে দেন খদ্দের বিয়ানীবাজার উপজে’লার বাড়ইগ্রামের সুরুজ আলীর ছে’লে জসিম উদ্দিনের হাতে। জসিম উদ্দিন ওই শি’শুকন্যাকে নিয়ে সিলেটের উপশহর এলাকার গুলবাহার হোটেলের ৫ম তলার ৫০৫ নাম্বার কক্ষে রেখে জো’রপূর্বক একাধিকবার ধ’’ র্ষ’ ণ করে। ওই দিন কৌশলে শি’শুকন্যাটি তার পিতার মোবাইলে ফোন করে।

মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে গোয়াইনঘাট থা’নার সালুটিকর ত’দন্ত কেন্দ্রের পু’লিশ বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট শহর ও বিয়ানীবাজার উপজে’লায় অ’ভিযান পরিচালনা করে। অ’ভিযানে বিয়ানীবাজার থা’না পু’লিশের সহযোগিতায় জসিম উদ্দিনকে আ’ট’ক করেন।

জসিম উদ্দীনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সিলেট শহরের উপশহরস্থ গুলবাহার হোটেলের ম্যানেজার জকিগঞ্জ উপজে’লার দরিয়াপুর গ্রামের মৃ’ত ম’দরিছ আলীর ছে’লে ওয়াজিদ আলীকে আ’ট’ক করেন। জসিম উদ্দিন ও ওয়াজেদ আলীকে আ’ট’কের পর শি’শুকন্যাকে না পেয়ে তারা উভ’য়ের সহযোগিতা নিয়ে দেহ ব্যবসায়ী হালিমা বেগমকে মোবাইলে ওই শি’শুকন্যাকে ৫ হাজার টাকায় চুক্তি করেন।

হালিমা বেগম ৫ হাজার টাকার চুক্তিমতো শি’শুকন্যাকে নিয়ে হোটেল গুলবাহারে যান। এ সময় ওতপেতে থাকা পু’লিশ হালিমাকে আ’ট’ক করে এবং শি’শুকন্যাকে উ’দ্ধার করে।

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট থা’নার ওসি আব্দুল আহাদ বলেন, ৯ বছরের একটি শি’শু নি’খোঁজ হয়েছিল। শি’শুটির পিতা প্রথমে গোয়াইনঘাট থা’নায় একটি জিডি ও পরে লিখিত অ’ভিযোগ করেন। এরই সূত্র ধরে গোয়াইনঘাট থা’নার সালুটিকর পু’লিশ ত’দন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শফিকুল ইস’লাম খান শি’শুটিকে উ’দ্ধার করেন।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় জ’ড়িত এক নারীসহ তিনজনকে আ’ট’ক করা হয়। আ’ট’ককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে এবং থা’নায় মা’মলার প্রস্তুতি চলছে। উ’দ্ধার শি’শুকন্যাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

Back to top button