আন্তর্জাতিক

বিয়ে নিয়ে মালালার যে মন্তব্যে উত্তাল পা’কিস্তান

কাগজে-কলমে বিয়ে করা ছাড়াও দু’জন মানুষের মধ্যে আজীবন পার্টনারশিপের স’ম্পর্ক হতে পারে বলে মন্তব্য করে পা’কিস্তানে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন দেশটির নারী শিক্ষা অধিকার কর্মী ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কার জয়ী মালালা ইউসুফজাই।

সম্প্রতি বিখ্যাত মা’র্কিন ফ্যাশন ম্যাগাজিন ভোগ-এর ব্রিটিশ সংস্করণের প্রচ্ছদ তারকা হয়ে ২৩ বছর বয়সী মালালা ম্যাগাজিনটির সঙ্গে ব্যক্তিজীবন, বিশ্বা’স, পড়াশোনা, টুইটারে কর্মকা’ণ্ড এবং অ্যাপলটিভি প্লাসের সঙ্গে তার নতুন অংশীদারিত্ব নিয়ে কথা বলেছেন।

ওই সময় বিয়ে খোলামেলা নিজের মনোভাবের কথা জানান মাত্র ১৭ বছর বয়সে বিশ্বের সবচেয়ে কমবয়সী হিসেবে শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা।

ভোগ ম্যাগাজিনকে দেওয়া স্বাক্ষাৎকারে মালালা ইউসুফজাই বলেন,আপনি জানেন স’ম্পর্কের কথা চিন্তা করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রত্যেকে তাদের স’ম্পর্কের গল্পগুলো শেয়ার করছে এবং আপনি চিন্তায় পড়ে যাচ্ছেন… আপনি যদি কাউকে বিশ্বা’স করতে পারেন অথবা না পারেন এবং তাহলে আপনি কেমন করে তার ওপর নির্ভরশীল হবেন?

তিনি আরও বলেন,আমি এখনও বুঝি না মানুষ কেন বিয়ে করে? আপনার জীবনে যদি একজন মানুষের দরকার হয়, তাহলে কেন আপনাকে বিয়ের কাগজে স্বাক্ষর করতে হবে? কেন শুধুমাত্র এটি এক ধরনের পার্টনারশিপ হতে পারে না?

মালালার এই মন্তব্য গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যে ভাই’রাল হয়ে যায়। পা’কিস্তানজুড়ে শুরু হয় তীব্র সমালোচনা। পা’কিস্তানের পার্লামেন্টেও মালালা ইউসুফজাইয়ের বিয়ে-বিতর্কের মন্তব্যের সমালোচনা হয়েছে। এমনকি দেশটির ধ’র্মীয় রাজনৈতিক দলগুলো মালালা ও তার পরিবারকে ওই মন্তব্যের ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কারের আহ্বান জানিয়েছে।

এসব সমালোচনার ব্যাপারে মালালার কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও তার বাবা এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন,গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মালালার মন্তব্যকে নিজেদের ইচ্ছামতো ব্যাখ্যা করছে।

Back to top button