অন্যান্য

শুভসংঘের সেলাই মেশিন পেয়ে পায়ের নিচে মাটি মিলল জবা রানীর

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজে’লার জয়েনপুর সাহাপাড়া এলাকার বিধবা জবা রাণী সাহা কালের কণ্ঠ শুভসংঘের দেওয়া সেলাই মেশিন উপহার পেয়ে বললেন, টাকার অভাবে কতদিন ধরে চেষ্টা করেও মেশিন কিনতে পারিনি। মানুষের কাছে গিয়ে বির’ক্তির পাত্র হয়েছি। এখন সংসারের অভাব দূর করতে মা-মে’য়ে মিলে নিজের সেলাই মেশিনে কাজ করতে পারব। ইশ্বর তোমাদের ভাল করুন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই এলাকায় জবা রানীর বাসায় পা চালিত সেলাই মেশিন নিয়ে পৌঁছান গাইবান্ধা জে’লা ও সাদুল্যাপুর উপজে’লা শুভসংঘের বন্ধুরা। শুভসংঘের জে’লা সাধারণ সম্পাদক লতা সরকার, সহ সাধারণ সম্পাদক তানজিমুলইস’লাম হাওলিদার, প্রচার সম্পাদক সোহাইবা সারাফ, সাদুল্যাপুর উপজে’লা শুভসংঘের সভাপতি মোরছালিন হাছান মুন্না, সহসভাপতি রওশন আলম, সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণ সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চন্দ্র সরকার, সাদুল্যাপুরের পরিবর্তন সংঘের সভাপতি মো. মাহামুদুল হাসান সোহাগসহ অন্যরা।

জবা রানী সাহা জানান, কিছুদিন আগে তার স্বামী তারাপদ সাহা মা’রা যান। অভাবের সংসার টানতে গিয়ে তিনি হিমশিম খাচ্ছিলেন। ছে’লে মে’য়েদের খরচ, সংসারের খরচ চালতে গিয়ে তিনি সেলাইয়ের কাজ নেন। অন্যের মেশিনে কাজ করতে গিয়ে তার খুব বেশি আয় হত না। সাদুল্যাপুর শুভসংঘের বন্ধুরা তার দুরাবস্থার খবর পেয়ে তার বাড়িতে এসে একটি সেলাই মেশিন দেওয়ার কথা জানান। এখন মেশিন পেয়ে মনে হচ্ছে পায়ের নিচে শক্ত মাটি পেলাম।

সাদুল্যাপুর উপজে’লা শুভসংঘের সভাপতি মোরছালিন হাছান মুন্না ও সম্পাদক শ্রাবণ সাহা বলেন, তারা অসহায় পরিবারটির জন্য জে’লা কমিটির সাধারণ সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করেন। পরে সবার সম্মিলিত চেষ্টায় একটি ভাল মানের সেলাই মেশিন জবা রানীকে দেওয়া হয়।

জে’লা সম্পাদক লতা সরকার বলেন, সাদুল্যাপুরের শুভসংঘের বন্ধুরা করো’নার এই দুঃসময়ে পরিবারটিকে সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনা করে। শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান জবা রানীর পাশে দাঁড়াতে আমাদের উদ্বুদ্ধ করেছেন। খোঁজ নিয়েছেন বারবার। আম’রা সবাই মিলে উপহারটি তাকে দিয়েছি।

Back to top button